Real Time True News

ভারতীয় জনপ্রিয় অভিনেতা ঋষি কাপুর আর নেই

বিএনএ, বিশ্বডেস্ক : ভারতের জনপ্রিয় অভিনেতা ঋষি কাপুর পরলোক গমন করেছেন। বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) সকালে মুম্বাইয়ের এইচ এন এন রিলায়েন্স হাসপাতালে শ্বাসকষ্টজনিত সংক্রমণে তার মৃত্যু হয়। তার মৃত্যুতে বলিউডে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

সংবাদমাধ্যমকে তাঁর বড় ভাই অভিনেতা রণধীর কাপুর তাঁর প্রয়াণের খবর জানান। বুধবার সকালে শ্বাসকষ্ট বাড়ায় মুম্বাইয়ের হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তিনি। দীর্ঘদিন ধরেই ক্যান্সারে ভুগছিলেন ঋষি। বিদেশে এক টানা চিকিৎসার পর গত বছর দেশে ফেরেন তিনি। কিন্তু মাঝেমধ্যেই সংক্রমণ বা শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। একের পর এক মৃত্যুর খবরে দিশাহারা ভারতের চলচ্চিত্র জগৎ।

ঋষি কাপুর মুম্বাইয়ের চেম্বুর শহরে একটি পাঞ্জাবি হিন্দু পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন ৪ সেপ্টেম্বর ১৯৫২ সালে। তিনি নায়ক রাজ কাপুরের দ্বিতীয় পুত্র সন্তান। তিনি মুম্বাইয়ের ক্যামশন স্কুলে ভাইয়ের সাথে স্কুল জীবন এবং আজমির এর মায়ো কলেজে উচ্চতর শিক্ষা লাভ করেন। তার দুই ভাই জ্যেষ্ঠ রণধীর কাপুর এবং কনিষ্ঠ রাজীব কাপুরও বলিউড অভিনেতা ছিলেন।

১৯৮০ সালের ২২ জানুয়ারি ঋষি কাপুর অভিনেত্রী নীতু সিংকে বিয়ে করেন। এই সুখী দম্পতির দুইটি সন্তান রয়েছে; অভিনেতা রণবীর কাপুর ১৯৮২ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন এবং ডিজাইনার রিধিমা কাপুর সাহানি ১৯৮০ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। ঋষি কারিশমা কাপুর এবং কারিনা কাপুর এর কাকা হন।

তিনি একজন ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা প্রযোজক এবং পরিচালক যিনি হিন্দি চলচ্চিত্রে কাজের জন্য সুপরিচিত। ১৯৭০ সালে তার পিতার চলচ্চিত্র মেরা নাম জোকারে শিশু শিল্পী হিসেবে অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ করে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার জিতে নেন তিনি।

এরপর তিনি ববি চলচ্চিত্রে ডিম্পল কাপাডিয়ার সাথে প্রথম প্রধান চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ পান এবং ১৯৭৪ সালে ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। ১৯৭৩ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত তিনি ৯২টি রোমান্টিক চলচ্চিত্রে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন যেখানে ৪১টি চলচ্চিত্রে সহ-তারকাদের সমন্বয় ছিল।

বাকি ৫১টি চলচ্চিত্রের মধ্যে মাত্র ১১টি চলচ্চিত্রে তিনি সফলতা পান।১৯৭৩ থেকে ১৯৮১ সাল পর্যন্ত তার সহধর্মীনি নীতু সিং এর বিপরীতে মোট ১২টি চলচ্চিত্রে এক সাথে কাজ করেন।

বিএনএ/এমএন আমিন/আহা