Real Time True News

করোনায় মারা গেলেন এস আলম গ্রুপের পরিচালক মোর্শেদ

বিএনএ, চট্টগ্রাম : করোনায় মারা গেলেন এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান মাসুদের বড় ভাই,এসআলম গ্রুপের পরিচালক এবং এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের পরিচালক মোরশেদুল আলম (৬৫)। চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে শুক্রবার (২২ মে) রাত দশটার দিকে তিনি মৃত্যুবরণ করেন (ইন্নালিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।

গত রোববার করোনা পজিটিভ আসে এস আলম গ্রুপের চেয়ারম্যান পরিবারের ছয় সদস্যর। সেখানে মোরশেদুল আলমও ছিলেন। প্রথমে সুগন্ধা বাসায় আইসোলেশনে ছিলেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাকে। সেখানে আইসিউতে ছিলেন। শুক্রবার রাতে তার মৃত্যু হয়।

জানা গেছে, চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইসিইউ ওয়ার্ডের দশটি শয্যার সবকটিই পূর্ণ থাকায় সেখানে গুরুতর অসুস্থ মোরশেদুল আলমকে ভর্তি করা যাচ্ছিল না। তবে অপর ভাই রাশেদুল আলমের শারীরিক অবস্থার তুলনামূলক উন্নতি হওয়ায় তাকে আইসিইউ ওয়ার্ড থেকে সরিয়ে সেখানে প্রায় মুমূর্ষু অবস্থায় তাদের বড় ভাই মোরশেদুল আলমকে ভর্তি করা হয়।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকল অফিসার ডা. গোলাম মোস্তফা জামান বলেন, মোরশদেুল আলম (৬৫) বৃহস্পতবিার সন্ধ্যা ৭টার দিকে চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আইস্ইউতে ভর্তি করা হয়। আজ রাত সাড়ে ১০টায় সেখানে তার মৃত্যু হয়। মোরশেদুল আলমের মৃত্যু সংবাদে চট্টগ্রামে ব্যবসায়ি ও সাধারণ মানুষের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে। বিরাজ করছে এক ধরনের আতঙ্ক।

করোনা শনাক্ত হওয়া এস আলম গ্রুপ চেয়ারম্যান পরিবারের অন্য সদস্যরা হলেন গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম মাসুদের ভাই এস আলম গ্রুপের ভাইস চেয়ারম্যান আবদুস সামাদ (লাবু), এস আলম গ্রুপের পরিচালক রাশেদুল আলম, ইউনিয়ন ব্যাংকের চেয়ারম্যান ও এস আলম গ্রুপের পরিচালক মোহাম্মদ শহীদুল আলম, এস আলম গ্রুপের পরিচালক ওসমান গণি এবং ফারজানা পারভীন নামে পরিবারের এক নারী সদস্য। এদের মধ্যে দুই জনের অবস্থা আশংকামুক্ত নন বলে সূত্রে প্রকাশ।

গত রোববার রাতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে নমুনা পরীক্ষার ফলাফলে তাদের করোনা পজিটিভ আসে।

বিএনএ/এইচ.এম।