Real Time True News

মর্নিং বার্ড’ উপরে তুলতে কাজ করছেন উদ্ধারকর্মীরা

বিএনএ,ঢাকা: বুড়িগঙ্গায় ডুবে যাওয়া লঞ্চ ‘মর্নিং বার্ড’ উদ্ধারে টানা কাজ করছেন, উদ্ধারকর্মীরা। এক যোগে উদ্ধারকাজ চালিয়ে যাচ্ছেন, ফায়ার সার্ভিস, কোস্টগার্ড, নৌবাহিনী ও বিআইডব্লিউটিএর কর্মীরা।

ইতোমধ্যে লঞ্চটিকে মাঝ নদী থেকে টেনে কেরানীগঞ্জের দিকে তীরের কাছাকাছি নেয়া হয়েছে। এটি উপরে তুলতে ১০টি এয়ার লিফটিং ব্যাগ লাগানো হয়েছে। এক-একটি ব্যাগ, ৭ থেকে ৮ টন ওজন তুলতে পারে। ফায়ার সার্ভিস জানিয়েছে, লঞ্চটি উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত তাদের এই অভিযান চলমান থাকবে।

মর্নিং বার্ড’ লঞ্চের মালিক দুই জন। তারা হলেন— মুন্সীগঞ্জের বাসিন্দা জয়নাল আবেদীন ও আব্দুল গফুর। ‘তালতলা ওয়াটার ওয়েজ’ কোম্পানির নামে লঞ্চটির রেজিস্ট্রেশন রয়েছে।
এদিকে, দুর্ঘটনার পর থেকে আত্মগোপনে রয়েছেন ময়ূর-২ লঞ্চটির মালিক ঢাকার বাসিন্দা মোসাদ্দেক হানিফ ছোয়াদ, সুকানি মাস্টার, সুপারভাউজার গা ঢাকা দিয়েছেন। তাদের কাউকে পাওয়া যাচ্ছেনা। আর চালক শিপন হাওলাদার জানিয়েছেন তিনি বেশকিছুদিন ধরে ছুটিতে আছেন। মোসাদ্দেক হানিফ ছোয়াদের কোম্পানি নাম সি-হর্স করপোরেশনের নামে ময়ুর-২ লঞ্চের রেজিস্ট্রেশন করা হয়েছে।

ময়ূর-২ লঞ্চ
ঢাকা নদীবন্দরের (সদরঘাট) পরিদর্শক আলমগীর হোসেন জানিয়েছেন, তাদের অবশ্যই ধরা পড়তেই হবে। যদিও লঞ্চের মালিকের রেসপন্সিবিলিটি রয়েছে। তবে দুর্ঘটনার জন্য চালক, মাস্টার, সুপারভাজার সমানভাবে দায়ী।

অন্যদিকে, বাংলাদেশ নৌ-যান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মো. শাহ আলম ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আশিকুল আলম জানিয়েছেন,এ ধরনের দুর্ঘটনা কোনো অবস্থায় মেনে নেয়া যায় না। এ ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্ত করে কারণ নির্ণয় এবং দুর্ঘটনা রোধে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করে জনগণের জানমালের নিরাপত্তা বিধানের ব্যবস্থা গ্রহণের জোর দাবি জানান তারা। পাশাপাশি দুর্ঘটনায় নিহতদের আত্মার মাগফেরাত কামনা এবং তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন করেনবাংলাদেশ নৌ-যান শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক।

সোমবার(২৯ জুন) অর্ধশতাধিক যাত্রী নিয়ে মুন্সিগঞ্জ থেকে সদরঘাট আসছিল মর্নিং বার্ড নামের ছোট লঞ্চটি। তবে চাঁদপুর থেকে আসা ময়ুর-২ লঞ্চের ধাক্কায় শ্যামবাজার এলাকায় লালকুঠি ঘাটের কাছে সেটি ডুবে যায়। সে সময় বেশ কজন সাঁতরে তীরে উঠতে পারলেও, অনেকের মৃত্যু হয়। পরে উদ্ধার অভিযানে নামে ফায়ার সার্ভিস, নৌ বাহিনী ও কোস্ট গার্ড সদস্যরা। উদ্ধার হয় ৩২ মরদেহ।মর্নিং বার্ড উদ্ধারে এদিন সন্ধ্যায় যোগ দেয় উদ্ধারকারী জাহাজ দুরন্ত।

আর করিম চৌধুরী